আবারো বাসে গণধর্ষণ, আটক ৫

Rape inside running bus
ধামরাইয়ে চলন্ত বাসে এক নারী শ্রমিককে (২৪) গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় বাসের চালক ও হেলপারসহ পাঁচ জনকে আটক করেছে পুলিশ।
গতকাল রোববার রাতে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের ধামরাইয়ে চলাচলরত যাত্রীসেবা পরিবহনে এ গণধর্ষণের ঘটনা ঘটে।
ধামরাই থানা পুলিশ জানায়, গণধর্ষণের শিকার ওই নারী শ্রমিক (২৪) ধামরাইয়ের শ্রীরামপুর এলাকায় গ্রাফিক্স টেক্সটাইল গার্মেন্টসে চাকরি করেন। গতকাল রাতে কারখানায় কাজ শেষ করে ইসলামপুরে তার বাসায় আসার জন্য যাত্রীসেবা পরিবহন নামের একটি বাসে উঠে। পরে বাসটির ভেতরে থাকা যুবকরা মহাসড়কে চলাচলরত অবস্থায় ওই নারী শ্রমিককে গণধর্ষণ করে। পরে ওই নারী শ্রমিক বাসের ভেতর থেকে চিৎকার করলে ধামরাইয়ের পার্ল সিএনজি এর সামনে কচমচ থেকে ওই পাঁচ জনসহ পুলিশ বাসটি আটক করে।

আটককৃতরা হলেন, বাস চালক বাবু, হেলপার বলরাম, মকবুল, সোহেল ও আজিজুল। পরে পাঁচ জনের বিরুদ্ধে ধামরাই থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একটি মামলা দায়ের করে সকালে তাদেরকে আদালতে পাঠায় পুলিশ।

Rape inside running bus
আটক কৃত বাস

এবিষয়ে ধামরাই থানার এসআই ভজন রায় ও এসআই মলয় সাহা জানান, বাসটি ব্যারিকেড দিয়ে থামিয়ে নারী শ্রমিককে উদ্ধার ও ৫ জনকে আটক করা হয়েছে। মামলা দায়েরের পর অভিযুক্তদের আদালতে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া ধর্ষণের শিকার ওই নারী শ্রমিককে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে।
এর আগে গেলো বছরের ২৫ আগস্ট বগুড়া থেকে ময়মনসিংহ যাওয়ার পথে বাসের ভেতরে ঢাকার আইডিয়াল ল’ কলেজের শিক্ষার্থী জাকিয়া সুলতানা রূপাকে গণধর্ষণ ও হত্যা করা হয়।
এঘটনায় বাসের চালক এবং তিন হেলপারের মৃত্যুদণ্ড দেন আদালত। এছাড়া বাসের সুপারভাইজারকে সাড়ে সাত বছরের কারাদণ্ড এবং এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here